মোবাইল ফোনের আবিষ্কারক কে? মোবাইল ফোন তৈরির ইতিহাস!


মোবাইল ফোনের আবিষ্কারক কে
মার্টিন কুপার


মোবাইল ফোনের আবিষ্কারক কে?


আমরা সকলেই মোবাইল ফোনকে আমাদের জীবনের একটি অবিচ্ছেদ্য  অঙ্গ বলে থাকি। কিন্তু আজ থেকে খুব বেশি দিন আগেও এই ডিভাইসটির কোন অস্তিত্ব ছিলনা। বর্তমান সময়ের গুরুত্বপূর্ণ এই  ডিভাইস মোবাইল ফোনের আবিষ্কারক মার্টিন কুপার।



তিনি প্রথম মোবাইল ফোনটি 1973 সালে তৎকালীন আমেরিকান ছোট্ট একটি কোম্পানি মটোরোলা অধীনে আবিষ্কার করেন।।1973 সালের এপ্রিল মাসের 3 তারিখে  মার্টিন কুপার DynaTAC 8000X-তে প্রথমবারের মতো মোবাইল ফোন কথা বলেছিলেন। তিনি যে প্রোটোটাইপটি ব্যবহার করেছিলেন তার ওজন ছিল ২.৪ পাউন্ড (১.১ কেজি) এবং 23 x 13 x 4.5 সেমি। ফোনটির দাম ছিল $3,995, যা বর্তমানে $10,000 ডলার সমান।




কিন্তু মাজার ব্যাপার হচ্ছে অতীতের কোনো ইলেকট্রনিক পণ্য  মোবাইল ফোনের মত এত দ্রুত  বিস্তার ঘটে নি। মোবাইল ফোন  শুধু এখন  কোনো বিলাসিতার বস্তু নয় বরং দৈনন্দিন জীবনের নিত্য প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ।



প্রায় পাঁচ দশক আগের সেই মোবাইলের তুলনায় আজকে এক একটি স্মার্ট ফোন যেন সুপার কম্পিউটার। আধুনিক জীবনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ এই মোবাইল ফোনের আবিষ্কারক মার্টিন কুপারকে নিয়ে এবং মোবাইল ফোনের ইতিহাস সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে আজকের এই পোস্টে।



1973 সালে আমেরিকার নিউইয়র্ক শহরে ইঞ্জিনিয়ার মার্টিন কুপার প্রথম মোবাইল ফোন তৈরি করেন তাই মার্টিন কুপার কেই মোবাইল ফোনের আবিষ্কারক/জনক বলা হয়।


তিনি তখনকার একটি ছোট্ট টেলিকম কোম্পানি মটোরোলা(Motorola) কাজ করতেন। তার স্বপ্ন ছিল এমন একদিন আসবে যখন সবার হাতেই নিজস্ব ফোন থাকবে এবং সেই ফোনের মাধ্যমে যেকোনো সময় যে কারো সাথে যোগাযোগ করা যাবে।




সে সময় টেলিফোন মানে ছিল এমন একটা জিনিস যা মানুষের কাজের টেবিল বা বাড়িতে তারের সাথে যুক্ত থাকে। সে কারণে সাধারণ মানুষের কাছে মোবাইল ফোনের ধারণা বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর মতোই ছিল।


Dick Tracy  নামে   আমেরিকান একটি কমেডি চরিত্ররা এক ধরনের রেডিও হাতঘড়ির সাহায্যে  পরস্পর সাথে যোগাযোগ করত সেটা দেখেই প্রথমবার মার্টিন কুপার এর মাথায় মোবাইল ফোনের চিন্তা এসেছিল। ঠিক সেই জিনিসটাই মার্টিন কুপার এর নেতৃত্বে 20/30 জনের একটি দল মাত্র 30 দিনের মধ্যেই তৈরি করেছিল।


প্রায় 48 বছর আগের 1973 সালে এপ্রিল মাসের নিউ ইয়র্কের হিলটন হোটেলের প্রথম মোবাইল ফোনের মডেল উপস্থাপন করা হয়। প্রথম মোবাইল ফোন দিছিল 23 x 13 x 4.5 সেমি দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট।


সেই মোবাইল ফোনের ওজন ছিল এক  কেজির বেশি(১.১ কেজি)।মাত্র 20 মিনিট কথা বললেই ফোনের ব্যাটারি শেষ হয়ে যেত। সেই ফোন  দেখে অনেকে হাসাহাসি করেছে।



তবে সত্যিকার অর্থেই ওই সময় এরকম একটি ফোন তৈর করা ছিল এক প্রকার অসম্ভব চ্যালেঞ্জ।




পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম মোবাইল কল টিও করেছিলেন মার্টিন কুপার। তিনি নিউ ইয়র্কে সিক্স এভিনিউ দিয়ে হাঁটতে হাঁটতে AT&T এ টি এন টি  কোম্পানিতে কর্মরত এক ইঞ্জিনিয়ার বন্ধুকে কল টি করেছিলেন। AT&T তখন শুধু আমেরিকার নায় বরং সমগ্র বিশ্বের সবচেয়ে বড় টেলিকম কোম্পানি ছিল।



এটিএন টির আবিষ্কৃত সেলুলার টেকনোলজি নামে এক প্রযুক্তির উপর ভিত্তি করেই মোবাইল ফোন আবিষ্কার হয়েছিল। হাতে করে ফোন নিয়ে ঘোরার কথা AT&T মোটেও ভাবেনি। তারা এই প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছিল মূলত গাড়িতে টেলিফোন সংযুক্ত করার জন্য।



কিন্তু ছোট্ট কোম্পানির মটোরোলা তৎকালীন বিশ্বের সবচেয়ে বড় টেলিকম কোম্পানি at&t কল্পনার সীমানাকেও ছাড়িয়ে যায়। 



তবে প্রথম মোবাইল ফোনটি বাজারে আসতে আরো দশ বছরের মতো সময় লেগে যায়। 1983 সালে প্রথমবারের মতো বাজারে আসে মটোরোলার Dyna TAC

8000X মডেলের ফোন টি।


আরো পড়ুন:




সেই মোবাইলের দাম ছিল প্রায় চার হাজার ডলার। বর্তমান সময়ে তাঁর বাজারমূল্য হচ্ছে প্রায় 9 লাখ টাকা। এছাড়াও তখন কল রেটও ছিল অনেক বেশি। সে যুগে মোবাইল অনেকটাই বড়লোকদের খেলানা হিসেবে ব্যবহৃত হত। 


ওই ফোনটি কারো কাছেই ইটের মত আবার কারো কারো কাছে জুতার মতো মনে হতো। তাই নাকি বলতো the brick আবার অনেকেই বলতো shos phone.


তবে মার্টিন কুপার এর নাম দিয়েছিলেন dynamic adaptive total area coverage. সংক্ষেপে dynatech.


সেই মোবাইল ফোন যে মানুষের জীবনে এত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে সেটা হয়তো তখন কেউ উপলব্ধি ও করেনি।


আজকালকের মোবাইল ফোনে রেডিও টিভি মিউজিক প্লেয়ার ক্যামেরা ইন্টারনেট সহ কি নেই।



বর্তমান পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার 87 শতাংশ বেশি মানুষ মোবাইল ফোন যোগাযোগ এর আওতায় এসেছে। এবং 511 কোটির বেশি মানুষ নিয়মিত মোবাইল ফোন ব্যবহার করে।


অবশ্যই পড়বেন..


0/Post a Comment/Comments

বিজ্ঞাপন