মালয়েশিয়া ভিসা কবে খুলবে 2022 | মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত (নতুন আপডেট)

দীর্ঘ সাড়ে তিন বছর পর আবারও খুলে গেছে বহুল প্রত্যাশিত মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার। কারা কারা যেতে পারবে এই স্পেশাল মালয়েশিয়ার ওয়ার্ক পারমিট ভিসায়। মালয়েশিয়া ভিসা কবে খুলছে। মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা খরচ হবে। বিস্তারিত সব কিছু নিয়েই সাজিয়েছি আজকের এই "মালয়েশিয়া ভিসা কবে খুলবে 2022" এবং "মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত" পোস্টটি।

মালয়েশিয়া জব ভিসা কবে খুলবে ২০২২


মালয়েশিয়া ভিসা কবে খুলবে ২০২২


আজকে পোস্টে আমরা জানবো মালয়েশিয়ার ভিসা কবে খুলবে। দীর্ঘদিন ধরে অনেকেই মালয়েশিয়ার ভিসার জন্য অপেক্ষা করে আছে। তারই ফলস্বরূপ অবশেষে তিন বছর পর মালয়েশিয়ার ভিসা বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য খুলেছে। 19 ডিসেম্বর 2021 মালয়েশিয়ার সরকারের সাথে বাংলাদেশের সমঝোতা চুক্তি সাক্ষর হয় | অর্থাৎ 19 ডিসেম্বর 2021 থেকে মালয়েশিয়ার ভিসা খুলে গেল।


বাংলাদেশ এবং মালয়েশিয়ার মধ্যে যে দীর্ঘ সময় ধরে শ্রমিক নেওয়ার অবৈধ সিন্ডিকেট আছে এইটাকে বন্ধ করার জন্য তৎকালীন মালয়েশিয়ার  প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বিগত তিন চার বছর ধরে  বাংলাদেশ থেকে লোক দেওয়া পুরোপুরি ভাবে বন্ধ রেখে ছিলেন।



এমনকি মালয়েশিয়াতে অবস্থানরত অবৈধ বাংলাদেশি যাদের কোন কার্ড নেই তাদেরকে ধরে ধরে ফেরত পাঠিয়ে দিতেছিল। তাহলে কেন এখন মালয়েশিয়া সরকার বাংলাদেশীদের প্রতি দয়া দেখিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা খুলে দিল?



আরো পড়ুন: কানাডা জব ভিসা ২০২২ | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা



এর প্রধান কারণ হচ্ছে মালয়েশিয়াতে বর্তমানের দক্ষ জনবলের খুবই অভাব। তাই তাদের দেশে এখন প্রচুর দক্ষ জনবল প্রয়োজন। এজন্য তারা এখন বাংলাদেশ থেকে লোক নেওয়া শুরু করেছে। ফলে মালয়েশিয়া কাজের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা খুলে দিয়েছে। চলুন দেখে নেই কি কি ক্ষেত্রে মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশে লোক নিবে।



মালয়েশিয়ায় কি কি কাজ রয়েছে


১.কৃষি ক্ষেত্র


মালয়েশিয়াতে আপনারা জানেন পাম গাছ থেকে প্রচুর ফলন হয়। আর পাম গাছের থেকে পাম অয়েল উৎপন্ন হয়। এই ক্ষেত্রে প্রচুর সংখ্যক এক্সপেরিয়েন্স লোক দরকার।



২.নির্মাণ শ্রমিক


২ নাম্বার হচ্ছে মালয়েশিয়ায় যে ওদের ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট এর কাজ রয়েছে সেখানে নির্মাণ শ্রমিকদের প্রচুর চাহিদা রয়েছে।


৩.বিভিন্ন সেবামূলক ক্ষেত্রে কর্মী নিয়োগ


তৃতীয় রে বিষয়টি রয়েছে সেটা হচ্ছে মালয়েশিয়ায় যে বিভিন্ন সেবামূলক ক্ষেত্র যেমন হোটেল, রিসোর্ট গুলো রয়েছে সেখানে প্রচুর পরিমানের লোক নিচ্ছে। কারণ দীর্ঘ দুই বছর করোনাকালীন দুর্যোগের সময় তাদের যে ক্ষতিটা হয়েছে এটাকে কাটিয়ে তোলার জন্য হোটেল রিসোর্ট ব্যবসা গুলোতে বর্তমানে চাঙ্গা ভাব বিরাজ করতেছে।


তাই এই কাজগুলোতে অবশ্যই এক্সপেরিয়েন্স লোক দরকার। পাশাপাশি তাদের গৃহকর্মীও দরকার হয়। বিশেষ করে মহিলা গৃহকর্মী মালয়েশিয়াতে দরকার।


এই সেক্টর গুলোতে বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণে শ্রমিক 2022 সালে মালয়েশিয়া নেবে। 


কিছুদিন আগে মালয়শিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী একটি আইন পাস করেছে। যেখানে বলা হয়েছে যে তারা বাংলাদেশ থেকে 2022 সালে উপরে যে সেক্টর গুলো আলোচনা করলাম সেগুলো তে প্রচুর কর্মী নিয়োগ দিবে। আর এই কাজটা তারা খুব শীঘ্রই করবে। অর্থাৎ 2022 সালের শুরুর দিকেই।


গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার সার্কুলার ২০২২


বাংলাদেশে থেকে মালয়েশিয়া শ্রমিক নিবে কিভাবে। 


মালয়েশিয়া এবং বাংলাদেশের মধ্যে একটা সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হবে। যেটাকে বলে g2g। এই g2g ভিত্তিতে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ থেকে লোক নিবে।



G2G কি?


G2G হচ্ছে Government to Government। এখানে কোন ব্যক্তি বিশেষের যুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। মালয়েশিয়ান গভারমেন্ট এবং বাংলাদেশ গভারমেন্ট তারা যৌথভাবে কর্মী নিয়োগ দিবে।



মালয়েশিয়া কারা কারা যেতে পারবে


অনেকে বলতে পারেন মালয়েশিয়ার ভিসা খুলে দিলে মালয়েশিয়ায় কে কে যেতে পারবে। উত্তর হচ্ছে মালয়েশিয়ায় আমি আপনি সবাই যেতে পারবে বর্তমানে এই ভিসাটাতে।



মালয়েশিয়া যেতে কি কি যোগ্যতা লাগবে


আপনারা জানেন যে ইউরোপীয় কান্ট্রিতে যেতে হলে নূন্যতম এইচএসসি পাস লাগে। কিন্তু মালয়েশিয়া সরকার বলে দিয়েছে যে আপনি মাত্র 8 পাস হলেই মালয়েশিয়া যেতে পারবেন। অর্থাৎ বাংলাদেশে যারা অষ্টম শ্রেণী পাস করছে তারা এই সার্টিফিকেট দেখাইলেই বাংলাদেশের যে দুইটা সংস্থা রয়েছে BMET এবং BOESL এই দুইটি সংস্থা তাদেরকে দুই তিন মাস ট্রেনিং দিয়ে উপযুক্ত করে তারপর পাঠাবে।



পাশাপাশি উপরে যেই সেক্টর গুলো আমি আলোচনা করলাম এগুলোর উপর আপনাদের যদি কারো এক্সপেরিয়েন্স থেকে থাকে তাহলে আর আপনার এক্সট্রা ট্রেনিং এর দরকার হবে না। সেই এক্সপেরিয়েন্স সার্টিফিকেট দিয়ে আপনারা যথাসময়ে রেজিস্ট্রেশন করে মালয়েশিয়া যেতে পারবেন।


মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত



মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত


প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমেদ এর ঘোষণা অনুযায়ী শীগ্রই মালয়েশিয়াতে সর্বনিম্ন কাজের বেতন হিসেবে নির্ধারণ করা হবে ১ হাজার ২০০ রিঙ্গিত যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ২৪ হাজার ৪২০ টাকার সমপরিমাণ।


মালয়েশিয়া জব ভিসা বা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা দিয়ে যে কাজ করতে যাবেন এটার শুরু সেলারি বাংলাদেশী টাকা দিয়ে 24000 দিয়ে শুরু হবে। এরপর আপনার এক্সপেরিয়েন্স এর উপর ডিপেন্ড করে এটা 50 থেকে 60 হাজার পর্যন্ত হতে পারে।



মনে রাখবেন একজন নির্মাণ শ্রমিকের বেতন এবং একজন হোটেল-রেস্টুরেন্ট শ্রমিকের বেতন কিন্তু সেখানে সমান হবে না। কাজের ভিত্তিতে বেতনের যে  পার্থক্য হবে সেটা হয়তো আপনারা নিজের আন্দাজ করতে পারতেছেন।


নিচে মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত তার তালিকা দেওয়া হল:


Job typeUSD (USD)Bangladeshi Taka (BDT)
C level executive$72,9476225628.89 / - Rs
System administrator$48,7824163277.84 / - Rs
UX Designer$47,4834052415.27 / - Rs
Attorney$41,6843557502.22 / - Rs
Teacher$35,9823070867.60 / - Rs
Architect$34,4692941741.29 / - Rs
Mobile developers$32,3772763200.50 / - Rs
Hardware engineer$31,4042680160.25 / - Rs
Operations manager$31,3092672052.52 / - Rs
Sales manager$30,8872636037.12 / - Rs
Business development$30,6702617517.35 / - Rs
Pharmacist$30,3932593876.91 / - Rs
IT Manager$27,9092381881.05 / - Rs
Finance manager$27,8342375480.20 / - Rs
Economic analyst$27,5372350132.87 / - Rs
Physician$27,3672335624.30 / - Rs
Project manager$26,7542283308.09 / -
Researcher scientist$26,5312264276.26 / - Rs
Marketing manager$25,6822191818.73 / - Rs
Content Marketing$24,8922124396.54 / - Rs
Product manager$22,5441924007.54 / -
Account Manager$21,8691866399.96 / - Rs
Dentist or dentist$21,7041852318.11 / - Rs
Software engineer$21,3311820484.60 / - Rs
Civil Engineer$20,9831790784.69 / - Rs
Art designer$20,8571780031.28 / - Rs
Data scientist$19,2201640322.25 / - Rs
Customer service$19,0141622741.27 / - Rs
Lecturer$18,7841603112.03 / - Rs
Accountant$18,5071579471.59 / - Rs
Business Analyst$18,2511557623.38 / - Rs
Mechanical Engineer$18,2071553868.22 / - Rs
Web developer$18,2001553270.81 / - Rs
Chemical engineer$18,0271538506.20 / - Rs
Human Resource Manager$17,3991484909.83 / - Rs
Data analyst$16,9171443773.75 / - Rs
Office Manager$16,9041442664.27 / - Rs
Chip$16,4501403917.85 / - Rs
Interior designer$14,6471250041.62 / - Rs
Graphic designer$14,4251231095.13 / - Rs
Post doctoral researcher$14,1751209759.00 / - Rs
Copywriter$13,6911168452.23 / - Rs
Q. A. To engineer$13,1371121171.35 / - Rs
Web Designer$12,7271086180.09 / - Rs
Electrical Engineer$12,5791073549.09 / -
Executive Assistant$11,559986497.65 / -
Administrative Assistant$9,744831597.30 / - Rs
Fashion designer$8,976766052.68 / - Rs
Nurse$7,409632317.77 / -
Receptionist$5,603478185.51 / - Rs
The waiter$4,694400607.32 / -
Treasurer$4,365372528.96 / - Rs



মালয়েশিয়ার ভিসার খরচ কত


সবার মনে সবচেয়ে বড় যে প্রশ্নটি সেটা হচ্ছে মালয়েশিয়া যাওয়ার ভিসার খরচ কত। মালয়েশিয়া যাওয়ার ভিসার খরচ অর্থাৎ পাসপোর্ট তৈরি করা থেকে শুরু করে মালয়েশিয়ার পৌঁছানো পর্যন্ত টোটাল দায়িত্বটাই কিন্তু বাংলাদেশ সরকারের।


তাই মালয়েশিয়া যাওয়ার টোটাল খরচ পাসপোর্ট তৈরি করা থেকে মালয়েশিয়ায় পৌঁছানো পর্যন্ত খরচ হবে মাত্র 30 হাজার টাকা। চমকে গেলেন তো! ওয়েলস এবং বিএমইটির মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করা, ফিংগার দেওয়া, মেডিকেল করা ট্রেনিং, এবং আপনার পাসপোর্ট খরচ সবই 30 হাজার টাকার মধ্যে পড়ে।


অনেকেই প্রশ্ন করে থাকবেন মালয়েশিয়া যাওয়ার প্লেনের ভাড়া তো 30 থেকে 35 হাজার টাকা। তাহলে তো এই সবকিছু মিলেই আপনি 3000 টাকা কিভাবে বলতেছেন?


উত্তরে বলব মালয়েশিয়ায় বর্তমানে বিভিন্ন সেক্টরে প্রচুর পরিমানের মানুষ দরকার। অর্থাৎ খোদ মালয়েশিয়ান সরকার  আপনাকে প্লেন ভাড়া দিয়ে নিয়ে যাবে!  যখন G2G মাধ্যমে লোক বিদেশে যাওয়া আসা করে তখন আর আপনাকে প্লেন ভাড়া করে যাইতে হয় না। তারাই আপনাকে আপনার প্লেনের ভাড়া দিয়ে তাদের দেশে নিয়ে যাবে।



মালয়েশিয়ার ভিসা কত দিনের জন্য হবে


মালয়েশিয়ার এই ওয়ার্ক পারমিট ভিসা প্রথম অবস্থায় দুই বছরের জন্য হবে। পরবর্তীতে আপনারা কাজ পরিবর্তন করে বা মালিকানা পরিবর্তন করে আরো থাকতে পারবেন। তখন আপনাকে এই বিষয়টা এক্সচেঞ্জ করে নিতে হবে। অর্থাৎ বাড়িয়ে নিতে হবে।



মালয়েশিয়া ভিসা কবে থেকে শুরু হবে


বাংলাদেশের সাথে মালয়েশিয়ার সমঝোতা স্বাক্ষর হবে 2022 সালে ফেব্রুয়ারি অথবা মার্চ মাসের দিকে। এখানে কিছু আমলাতান্ত্রিক বিষয় আছে এগুলো যখন কমপ্লিট হয়ে যাবে তখনই মালয়েশিয়া ভিসা চালু করা হবে। আশা করছি এর পরে দুই থেকে তিন মাস এর মধ্যেই যখন সব কাজের প্রসেস গুলো শেষ হয়ে যাবে তখনই মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে।



তাই যাদের পাসপোর্ট নেই তারা এখনই পাসপোর্ট করে ফেলুন। কারণ এখন সবাইকে সরকার ই-পাসপোর্ট বা ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট দিচ্ছে। আপনার ই-পাসপোর্ট টা হয়ে গেলে আমাদের এই ওয়েবসাইটে চোখ রাখবেন পরবর্তীতে আমরা আরো 'মালয়েশিয়া ভিসা কবে খুলবে ২০২২' মালয়েশিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা এবং মালয়েশিয়ায় কাজের ভিসা সম্পর্কে যাবতীয় আপডেট দিব।


পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২২

আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিত মালয়েশিয়া ভিসা ২০২২ নিয়ে আপডেট দিব তখন আপনার ঢাকায় অবস্থিত রিক্রুটিং এজেন্সি আছে বা বাংলাদেশ সরকারের যে সংস্থা আছে সেখানে গিয়ে যোগাযোগ করার মাধ্যমে উপযুক্ত প্রসেস এর মাধ্যমে যখন আপনার রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট করবেন তখন আপনারা এলিজেবল হয়ে সরাসরি মালয়েশিয়া দেওয়ার যোগ্যতা লাভ করবেন।



তাই আর দেরি নয় মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য এখনই নিজেকে প্রস্তুত করতে শুরু করে দিন।


মালয়েশিয়া ভিসা কবে খুলবে ২০২২  মালয়েশিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য কত খরচ হবে এই সম্পর্কিত পোস্ট যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জানাবেন এবং পরবর্তী আপডেট সহ অন্যান্য বিষয়ে জানার জন্য আমাদের সাথেই থাকবেন ধন্যবাদ।



Next Post Previous Post
4 Comments
  • Unknown
    Unknown ১২ মার্চ, ২০২২ ১১:৩৪ AM

    অনেক সুন্দর পোস্ট কিন্তু আমি একদম নতুন আমি কেমনে যাবো এর কিছুই জানি না আমাকে একটু সহায়তা প্রদান করুন আমার সাথে একটু ফোনে কথা বলোন আমার নাম্বার 01796267321

  • Unknown
    Unknown ২০ মার্চ, ২০২২ ৭:৫৭ PM

    Maleshi khul be kbe vai

  • Unknown
    Unknown ১৭ এপ্রিল, ২০২২ ৯:৫৫ PM

    ভালো লাগলো

  • Romzan
    Romzan ২০ এপ্রিল, ২০২২ ৩:২৫ PM

    01762016803

Add Comment
comment url